মাসুম পারভেজ – মাত্র ১৮ মাসে আন্তর্জাতিক মানের UI/UX ডিজাইনার

Masum-in-work

ফ্রিল্যান্সিং- এ সফলতা পেতে হলে অবশ্যই আগে কাজ শিখতে হবে, কাজ জানতে হবে

আপনার সংক্ষিপ্ত পরিচয়?

আমি মাসুম পারভেজ, UI/UX Designer । সুনামগাঞ্জ সরকারি কলেজ থকে HSC পাশ করেছি, এখন সিলেট মদন মহন কলেজ এ অনার্স ২য় বর্ষে আছি। প্রায় ২.৫ বছর এর মত হচ্ছে Freelance UI/UX Designer হিসেবে কাজ করতেছি।

ফ্রিল্যান্সিং-এর শুরুর গল্প টা যদি বলতেন ?

বাবা মায়ের ইচ্ছা ছিল Official যে কোন জব করব। সেই কারণেই আমি SSC পরিক্ষা দিয়ে Laptop কিনি, যেন Computer এর উপর সাধারণ জ্ঞান থাকে যেটা চাকরির ক্ষেত্রে কাজে আসবে। বাবা যখন আর্মি থেকে অবসরপ্রাপ্ত হন, তখন আমি ছিলাম ব্ড় আর বয়স কম ছিল বলে পরিবার থেকে ওইভাবে না বললেও আমার নিজের কাছেই বড় ছেলের একটা দায়িত্ববূধ চলে আসল । তাই ২০১৫ এর দিকে মাথায় টাকা আয় করার চিন্তা আসে, তখন অনলাইন এ খুঁজতে থাকি কিভাবে টাকা আয় করা যায় এবং SYLHET IT ACADEMY এর খুঁজ পাই। আমার উদ্দেশ্য ছিল অনলাইনে টাকা আয় করার। DESIGN / SEO বা অন্য Category কোনটা করব ওই দিকে এতটা ভাবিনি, কারন আমার এবং বাবা-মার ইচ্ছা ছিল Official যে কোন জব করব। যাইহোক DESIGN এর উপর SYLHET IT ACADEMY তে Professional Graphics Design Course Complete করলাম।

 

Masum-in-work

ফটো: আমি যখন গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখা শুরু করি

আপনি আপনার শুরু থেকে আজ পর্যন্ত সফলতা নিয়ে বলুন?

যখন আমি DESIGN শিখি তখন বাংলাদেশর Freelance/Design কমিউনিটি টা ওইভাবে আমার জানা হয়নি, সিলেটের অল্প জনকেই চিনতাম, সেই সময়টাতে আল রায়হান ভাই , আলি সাঈদ ভাই উনারা অনেক পরিচিত ছিল সিলেট কমিউনিটিতে । তাদের কথা অনেকেই বলত তখন অনেক ভাল লাগত। আর তখন শুনেছিলাম রায়হান ভাইকে Grammenphone এর Project করার জন্য (Freelancing) আফার করা হয়েছিল। আমার কাছে ব্যাপারটা অনেক বড় মনে হল, আর নিজে নিজেই Motivate হলাম। সেক্টর যেটাই হোক ভাল কাজ যারা পারে তারা অবশ্যই সফল। তখন আমি ঠিক করি যে Print Design না করে UI/UX Design করব/শিখব। আর অনেক বড় UI/UX Designer হব। তারপর কোন এক ভাবে রায়হান ভাই এর সাথে পরিচয় হয় এবং উনার অফিস এ জয়েন করলাম। সময় নষ্ট করা আমার মোটেও ভাল লাগতনা।তাই কাজের ফাঁকে ফাঁকে তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে লাগলাম, নিজে নিজে অনেক কিছু আদায় করে নিয়েছি উনাদের কাছ থেকে । এছাড়াও অন্যদের কাছ থেকে ও অনেক কিছু শিখেছি। বলা যায় সিলেটের Freelance কমিউনিটির অনেকই আমার অনেক সিনিয়র।

masum-in-office2

ফটোঃ ফ্রিল্যান্সিং গ্রুপের সাথে আমি ।

– যাইহোক অফিসে, বাসায় অনেক সময় দিতাম ডিজাইনের উপর। আমি বিশ্বাস করতাম আমাকে সংগ্রাম করতে হবে, ভাল কিছু কখনই সহজ ভাবে হয়না। ২০১৬ এর শুরুর দিকে রায়হান ভাই এর জব হয়ে যায় P1 – Bashundhara Group এ। আবার আলি সাঈদ ভাই ও বলতেছেন জয়েন করবে, তখন আমি অনেকটা হতাশ হয়ে গিয়েছিলাম। তারাই ছিল একমাত্র ভাল ডিজাইনার যাদের খুব কাছ থেকে শিখতে পারব। এখন তারা ঢাকা চলে গেলে আমি কার কাছ থেকে শিখব? কিন্ত আমাকে যে শিখতেই হবে………… রায়হান ভাইকে বললাম ” আপনারা চলে গেলে আমি কিভাবে কাজ শিখব?” উনি বললেন, “তোমরা যতটাই হোক আমাদের হেল্প পাচ্ছ, কিন্ত আমাদের সময়তো এমন কেউও ছিলনা, নিজে নিজেই শিখেছি বলতে পার।” তখন আস্থা পেলাম ব্যাপারটা আরও পরিষ্কার হল যে, কখনই কেবল অন্যের উপর ভরসা করা যাবেনা, সবাই তাদের নিজস্ব লক্ষ্যের জন্য কাজ করে এবং অবশ্যই তারা ব্যস্ত থাকবে । তখন থেকে আমি নিজে নিজে চেষ্টা করতাম আর যখন আটকে যেতাম তখন Google, YouTube এর সাহায্য নিতাম,যা এখন ও করি। ডিজাইন করে করে রায়হান ভাই, আলি-সায়েদ ভাইকে অননাইলে দেখাতাম আর Feedback নিতাম। আমি কেবল তাদের মাঝেই সীমাবদ্ধ থাকিনি এছাড়াও Community এর অনেকেই আমার ডিজাইন দেখাতাম,তাদের কাছ থেকেও Feedback নিতাম। সবাই তো আর সবসময় ফ্রি থাকেনা, এটা বুঝা দরকার।
আমি দিনের এবং রাতের বেশির ভাগ সময়ই কাজে বসে থাকতাম। ডিজাইনে অনেক-অনেক বেশি সময় দিতাম। এভাবে কাজ করে নিজের Portfolio Build-Up করাতে অনেক লক্ষ রাখতাম, আর অনেক Hard-Work করতাম। Portfolio করার অনেক জায়গা আছে তার মধ্যে অনেক পপুলার Dribbble আর Behance। আমি Dribbble এ বেশি Active থাকতাম আর নিয়মিত design upload/share দিতাম। Portfolio যখন মোটামোটি ভাল তখন অনেক জব অফার আসে। তার মধ্যে দুইটা ছিল বাংলাদেশের বড় কোম্পানি। একটা JOOM-SHAPER আরেকটা P1 – Bashundhara Group। আমি P1 – Bashundhara Group এ Junior UI/UX Designer হিসেবে জয়েন করলাম, যাদের কাছ থেকে শিখেছি তাদের team এই কাজ করা আমার জন্য অর্জনের ছিল ( রায়হান ভাই এর কথা বলছি ) । ২০১৭ এর মাঝ খানে জব ছেড়ে দিয়েছি। এখন Freelancing এ আছি।
masum-in-office

ফটোঃ বসুন্ধরা গ্রুপ (P1)  UI/UX ডিজাইনার হিসাবে আমি

আপনি ফ্রিল্যান্সিং এর ব্যাপারে আপনার Experience থেকে এখন সফলতা, আপনি কিভাবে করেছিলেন ? এবং প্রধান KEY বিষয় গুলো আমাদের বলতেন যদি ।

– আসলে আমি passion থেকে design এ আসিনি, টাকা আয় করার জন্য এসেছিলাম। (don’t take it otherwise) আমার প্রথম দিকে যেহেতু টাকা আয় করার জন্যই ফ্রিল্যান্সিং- এ আসা, তাই আমি ওই দিকেও নজর রেখেছি বা আমাকে রাখতে হয়েছে।  (আগে এটা বলে রাখি এটা depend করে ব্যক্তির উপর। কেউ আগে আবার কেউ অনেক পরে, এখানে হতাশ হবার কিছু নেই। ) তবে ব্যাপারটা  এমন না যে Course Complete করলাম আর Freelancing শুরু  করলাম। শিখার পাশাপাশি  Graphicriver, Upwork, Freelancer, 99 Design, Peopleperhour এই markerplace গুলায় কাজ করতাম । আমার বেশি নজর ছিল কাজ শিখার উপর। প্রায় এক বছরের এর মত পরিশ্রম করেছি, অতটা সফল্যতা আসেনি, হতাশ হইনি।  বিষয়টা একেবারেই স্বাভাবিক ছিল যে আমি কাজ না জানলে আমি কাজ পাব কিভাবে? । ( মজার বেপার হল Graphicriver একটু অন্যরকম, এখানে Design Sale করা যায় কিন্তু তার আগে Design Review হয়। আন্দাজের উপর যতটুকো মনে আছে ৬৪ টা iteam upload দিয়ে 14-16 তার মত approve হয়েছিল আর বাকি সব Rejected, তখন অনেক হতাশ ছিলাম। পরে আমি এটা নিয়ে ঘাটাঘাটি করি কয়দিন, যারা ভাল করছে তাদের অনেক কে মেইল পাটাইছিলাম।  কয়েক জন রিপ্লেই করেছিল তাদের কাছ থেকে পরামর্শ নিলাম, এরপর ১০০ এর মত iteam upload দিয়ে 74 টার মত approve করাই, এখন আর কাজ করা হয়না )।

– আমি আমার experience থেকে বলতে গেলে আমি যেটা বিশ্বাস করি ফ্রিল্যান্সিং- এ সফলতা পেতে হলে অবশ্যই আগে কাজ শিখতে হবে, কাজ জানতে হবে। শিখার আসলে শেষ নাই, তবে যেটার উপর ফ্রিল্যান্সিং  করতে চান সেটা অবশ্যই এবং অবশ্যই ভাল ভাবে জানতে হবে, ভাল কিছু করতে হলে আগে ভাল ভাবে জানা চাই।

( Seek knowledge, not results ) এটা যেন কখনও না হয় যে আপনে কাজ না পেরেই কাজ খোজা/টাকা আয় করার জন্য উঠে পরে লেগেছেন, আর বার বার হতাশ হচ্ছেন। একটা বিষয় মাথায় রাখতে পারেন যে, একজন Client অনেকর মাঝ খান থেকে আপনাকে কেন কাজ দিবে? অবশ্যই তার কাজটা ভাল-ভাবে করিয়ে নেয়ার জন্য? তাই আগে শিখুন, ভাল ভাবে শিখুন। হতাশ হবেন না, ইনশাল্লাহ আপনি যখন কাজ ভালভাবে পারবেন তখন সফলতা দেখা দিবে।

Freelancing করে যেহেতু আপনি সার্ভিস দিচ্ছেন তাই সেখানে নিজেকে sell করতে হবে, আপনি যা পারেন সেটা অন্যদের জানাতে হবে, Online Portfolio site এবং Social মিডিয়া তে নিজের প্রোফাইল ভাল করে গুছিয়ে রাখুন। নিজের সার্ভিস সম্পর্কে, নিজের experience, skills এই গুলো ভাল করে বলে রাখুন। যেমন- Dribbble, Behance, Linkedin, Twitter……. । ফ্রিল্যান্সিং- এ এমন নির্দিষ্ট পথ নেই যেটা দিয়ে আপনি সফল হয়ে যাবেন । এইখানে বিভিন্ন মানুষদের সাথে connect থাকুন। আর কমিউনিটিতে অ্যাক্টিভ থাকার চেষ্টা করুন, আপনার পছন্দের এবং industry realted ইভেন্টে জয়েন করুন, তাহলে অনেক কিছু জানতে পারবেন।

– মার্কেটপ্লেইসে কাজ বা Client যখন পাবেন না, তখন আপনি হতাশ না হয়ে আপনার নিজের দুর্বল দিক খুঁজুন ব্যাপারটা কখনই এমন না যে আপনি proposal পাঠালেন আর client আপনাকে hire করে ফেলল, বা  Dribbble, Behance Upload দিলেন আর কাজ পেয়ে যাবেন । একজন client অবশ্যই চাইবে টাকা দিয়ে ভাল কাজটা পেতে, ভাল output পেতে।  তাই কাজ পাবার জন্য নিজের skills বাড়ান । নিজের confidence set করুন, প্রমাণ করুন যে আপনি এই কাজের জন্য তৈরি

Client এর কাজ করার আগে client এর কাজের details / requirement ভাল করে বুঝে নেয়া, না বুজলে প্রশ্ন করা? উনি কি ধরনের কাজ চাচ্ছেন? কোন example আছে কিনা? উনার কোন color, style prefer করে কিনা? এই গুলা clear হওয়া, client এর দেয়া Deadline meet করা, ভাল ভাবে communication করা এবং Professionalism এ খেয়াল রাখা, client যা চাচ্ছে তার উপর research করা, এই গুলো হল freelancing এর মূল KEY    Client এর সাথে relation ভাল রাখাটা একজন freelancer অন্যতম সফলতা। আর হে আপনি কখনই একজন client / markerplace এর উপর ভরসা রেখে বসে থাকবেন না।

 

masum-in-pplane

ফটোঃ ঢাকা টু সিলেট (বাড়িতে যাওয়ার সময়)

এই ক্ষেত্রে ব্যর্থতার কি কি কারণ হতে পারে ?

– আমার পরিচিত অনেকেই আছে যারা আমার সাথেই কাজ করত বা আমার আগে শুরু করেছে, কিন্তু কষ্টের কথা হল তারা এখনও ওইখানেই পরে আছে ,ব্যর্থতার সাক্ষ্য হয়ে আজও দাঁড়িয়ে আছে। আমার ধারনা প্রধান কারণ হল, সময়ের মূল্য না দেয়া, নিজের কাজ কে না ভালবাসা, নিজের passion কোথায় বা নিজের লক্ষ্যে পৌছানোর জন্য ঠিক ভাবে কাজ না করা, নিজেকে বড় মনে করা বা কারো কাছে শিখতে বা জানতে লজ্জা পাওয়া। নিজে নিজেও শিখার চেষ্টা (Google, YouTube) না করা।

নিজের skills আর সফলটার ব্যাপারটা কিভাবে দেখছেন ?

আসলে জানার/শিখার শেষ নাই, আপনি যত ভাল জানবেন তত আপনার জন্যই ভাল। আমি এখনও শিখতেছি। বিভিন্ন ব্লগ পড়ি। বড় বড় ডিজাইনারদের ভাল কাজ follow করি, নিজেকে নিজ industry এর Latest trend এর সাথে Updated রাখতে চেষ্টা করি সবসময়।
আমি বড় ভাইদের অনেক বেশি প্রশ্ন করি, আমি মনে করি এখন ও আমার অনেক শিখার বাকি আছে তাই আমি কাউকে প্রশ্ন করতে লজ্জা পাইনা। পরিচিত বা Community তে যার কাছে জানার থাকে তাকে প্রশ্ন করি। অন্যদের ডিজাইন এবং নিজের ডিজাইন নিয়ে চিন্তা করি এই ক্ষেত্রে অনেক জানা যায়। কেউ যদি ভাল Design করে তখন আমি সেঁটা দেখি আর নিজেও ভাল কিছু করার চেষ্টা করি, এই ভেবে যে আমি পারবনা কেন? আমিও পারব।
কতখানি সময়ের মধ্যে নিজেকে কোথায় দেখতে চান ওইটা ঠিক করুন। আর নিরলস ভাবে লেগে থাকুন। যেভাবে করতেছেন সেভাবে হতাশা আসলে, হতাশ না হয়ে অন্য ভাবে করুন। আপাতত শিখার জন্য লজ্জা ছাড়ুন, আটকে গেলে Google, YouTube করুন, কমিউনিটির বড়দের সাহায্য নিন।

 

masum-in-tour

ফটোঃ বান্দরবনে আমরা ফ্রিল্যান্সারা

কোন blog বা site আপনি বেশি Follow করেন?

Inspiration এর জন্ Awward, Muzli, Dribbble, Behance । Argument, বিভিন্ন ডিজাইনারদের Research, Story, Design industry এর বিভিন্ন ব্লগ এর জন্য বেশি Follow করি হল Medium, Sidebar । ( আর Google, YouTube সবসময় )

 

একজন Freelancer এর Portfolio Build-Up করার ব্যাপারে কিছু বলুন?

কয়েকটা কথা- নিজের সেরা Design গুলো শেয়ার দেয়াটাই ভাল, Portfolio এর ক্ষেত্রে Client আপনার এই কাজ দেখে আপনার ability সম্পর্কে ভাল ধারনা পাবে কিনা? আপনার কাজ দেখে আপনার উপর উনার বিশ্বাস আসবে কিনা? সেটা মাথায় রেখে কাজ করতে পারেন। আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আগেই Creative হতে যাবেননা, আগে যেটা করতে চাচ্ছেন সেটার Principle জানুন, সেই বিষয়ে ভাল করে জানুন। সবাইকে follow করতে যাবেন না, নিজের জন্য কাজ করুন, একটা বিষয় খেয়াল করলে দেখা যায় যে একজন Designer একটা pattern (Creative, out of the box ) এ UI design শেয়ার করেছে এর দেখাদেখি আরেকজন design এ নতুন, সে ও একই pattern এর UI design করতেছে অথচ সে ভাল করে UI design এর principle ই জানেনা। Design এ নিজের UX Skills প্রকাশ করতে চাইলে আপনার কাজের process সম্পর্কে দেখুন আপনি কোন বিষয় গুলো মাথায় রেখেছেন, আপনি কি কি সমস্যা সমাধান করছেন এবং কিভাবে করছেন সেগুলো ভাল করে দেখুন, আর UI/UX Designer দের এখন দুইদিকেই খেয়াল রাখা চাই, এখন আধুনিক যোগ, গতানগতিক ভাবে মানুষ এখন দুইটাই চায়, Visual আর Better Experience । Portfolio এর প্রত্যেকটা কাজে Quality এর দিকে খেয়াল রাখুন আর একটা কথা মাথায় রাখবেন Template সবাই বানাতে পারে, তাই সবাই যা করে একেবারে সেটা না করে নতুন কিছু আনার চেষ্টা করুন। Design এ কেউ feedback দিলে সেটাকে ভাল ভাবে নিন, এটা ভাবা ঠিক নয় যে আপনাকে এখানে পচানো হয়েছে, আপনি এটা ভাবুন যে আপনার এই experiment টাতে আরেকটু improve করার দরকার বা যেখানে feedback দিয়েছে। সেটা আর ভাল হতে পারত… Alwasy learn …form mistakes।

masum-in-restaurent

ফটোঃ আমরা সবাই UI/UX ডিজাইনার (Ginger Restaurant / Jamuna Future Park )

আপনার কাজ করতে করতে যখন বিরক্ত আসে তখন কি করেন?

যখন খারাপ লাগে তখন বড় ভাইদের বা সাথে যারা আছে তাদের সাথে হাটতে বের হই, YouTube এ ভিডিও দেখি, বাড়িতে ফোনে কথা বলি সবার সাথে।

 

আপনি কিভাবে আপনার Rutine করেন এবং Future Plan এর কথা অবশ্যই বলবেন?

সময় এর মূল্য দেন, প্রতিদিনের রুটিন করুন। আমি যেভাবে করি, দিনের আর রাতের সময় মিলিয়ে অন্যান্য কাজ ছাড়া আমি সময় কে তিন ভাগ্যে ভাগ করেছি। client এর কাজের জন্য একটা সময়, নিজের portfolio এর জন্য একটা সময়, আর Future plan কে মাথায় রেখে নিজেকে প্রস্তুত করার জন্য একটা সময়। বারবার অ্যালার্ম আসে আর আমাকে মনে করিয়ে দেয়। আপনি আপনাকে মত করে সাজান, অবশ্যই সাময়ের মূল্য দিন।

 

Screen Shot 2017-08-10 at 9.23.23 AM

ফটোঃ আমার প্রতিদিনের রুটিন

মাসুম পারভেজের পোর্টফোলিওঃ

Dribbble Link
Behance Link
আমাদের ফেইসবুক পেজ
আমাদের ফেইসবুক গ্রুপ
স্বাক্ষাতকার গ্রহণে:রাজু আহমেদ চৌধুরী 

 

 

সার্চ করুন

web hosting

জনপ্রিয় লেখাসমূহ

Find us on facebook

Scroll to top