সিলেটে তিন দিনব্যাপি ই-বাণিজ্য মেলা

IMG_8075-300x225
সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
গত ৭-৯ ফেব্রম্নয়ারি ঢাকাতে দেশের প্রথম ই-বাণিজ্য মেলা সফল ভাবে সম্পন্ন করার পর আগামী ৪ এপ্রিল বৃহষ্পতিবার থেকে সিলেটে শুরম্ন হচ্ছে দেশের দ্বিতীয় ই-বাণিজ্য মেলা ও ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা। ‘ঘরে বসে কেনাকাটার উৎসব’ শেস্নাগান নিয়ে আয়োজিত এ মেলা সিলেট স্টেডিয়াম সংলগ্ন মোহাম্মদ আলী জিমনেশিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সিলেট বিভাগীয় কমিশনারের পৃষ্ঠপোষকতায় ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানে সহায়ক ‘সিলেট ই-বাণিজ্য মেলা ২০১৩ ও ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা’ এর আয়োজক সিলেট জেলা প্রশাসন ও মাসিক ‘কমপিউটার জগৎ’। মেলাটি ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শুভ উদ্বোধন করবেন মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
মেলা উপলক্ষে ৩০ মার্চ  সকাল ১০ টায় বাংলাদেশ কমপিউটার কাউন্সিল সভাকক্ষ এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এছাড়া মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সম্মেলনে মেলার বিসত্মারিত বিষয়বস্ত্ত উপস্থাপন করেন ই-বাণিজ্য মেলার আহবায়ক আয়োজক প্রতিষ্ঠান কমপিউটার জগৎ-এর কারিগরি সম্পাদক ও কমজগৎ টেকনোলজিসের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহেদ তমাল। বক্তব্য রাখেন মেলার পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরম্নল ইসলাম খান (এন আই খান)। এছাড়া বক্তব্য রাখেন কমপিউটার জগৎ-এর সহকারি সম্পাদক এম. এ. হক অনু, এসএসএল ওয়্যারলেস এর চীফ অপারেটিং অফিসার আনিসুল ইসলাম এবং মেলার সমন্বয়কারী মোহাম্মদ এহ্তেশাম উদ্দিন মাসুম।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্ক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরম্নল ইসলাম খান বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রযাত্রায় মানুষ এখন ঘরে বসেই সব কিছু পেতে চায়। আর এই কাজটিকে সহজ করেছে ই-বাণিজ্য প্রতিষ্ঠানগুলো। দেশে ই-বাণিজ্যকে সম্প্রসারণ করতে ই-বাণিজ্য মেলা গুরম্নত্বপূর্ণ ভহমিকা পালন করছে। তাই এই মেলাকে বাংলাদেশের বিভাগীয় পর্যায়ের পর জেলা ও উপজেলা পর্যায়ও ছড়িয়ে দিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্ক্তি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) শুশান্ত কুমার শাহা বলেন, সিলেট বাংলাদেশের একটি অন্যতম জেলা। অনেকে প্রবাসে বসবাস করছেন। এই বাণিজ্য মেলা প্রবাসীদের অন-লাইনে ক্রয়-বিক্রয়ের ক্ষেত্রে  আগ্রহী করবে। প্রবাসী বিদেশ থেকে তার প্রিয়জনদের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য থেকে শুরম্ন করে বিভিন্ন উপহার কিনে দিতে পারবেন।
বাংলাদেশ কমপিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক এস এম আশফাক হোসেন বলেন, ই-বাণিজ্যমেলা যেহেতু তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্ক্তি মন্ত্রণালয় পৃষ্ঠপোষক করছে, সেহেতু বাংলাদেশ কমপিউটার কাউন্সিলও সবসময় এই উদ্যোগ ও মেলাকে সহযোগিতা করবে। তিনি আরো বলেন, এখনি সময় ই-কমার্স ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করে তোলা।
মেলার আহবায়ক মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, দেশে ই-কমার্স সম্পর্কে জনসচতেনতা সৃষ্টির লক্ষে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। গত ফেব্রম্নয়ারিতে ঢাকায় দেশের প্রথম ই-বাণিজ্য মেলা সফল ভাবে সম্পন্ন হওয়ায়, কমপিউটার জগৎ ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এই মেলাটি পর্যায়ক্রমে ৬টি বিভাগে করার সিদ্ধান্ত নেয়। তারই অংশ হিসেবে সিলেটে দেশের দ্বিতীয় ই-বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, তিনদিনব্যাপি এই মেলায় ই-কমার্সের সঙ্গে জড়িত দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরবে। মেলায় মোট ৪৫টি স্টলসহ ৪৫টি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করবে। মেলা উপলক্ষে পণ্য ও সেবা ক্রেতাদের জন্য বিশেষ সুযোগ যেমন থাকবে, তেমনি এ বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে বিভিন্ন ধরণের আয়োজন রয়েছে।
এ সময় আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ই-বাণিজ্য মেলার প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে রয়েছে অনলাইন পেমেন্ট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এসএসএল কমার্জ ও কমজগৎ টেকনোলজিস । গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ই-সুফিয়ানা ও সিজে সফট। মেলার ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট করছে অর্পণ কমিউনিকেশন লিমিটেড।
উলেস্নখ্য যে, তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এর সহযোগীতায়, SSL Wireless নিয়ে এসেছে apps2play.mobi। এটি বাংলাদেশের প্রথম প্লাটফর্ম যা দেশের তরম্নন প্রজন্মকে মোবাইল উপযোগী অ্যাপ্লিকেশন তৈরী এবং বাজারজাতকরণের সুযোগ করে দেবে। এর মাধ্যমে গ্রাহক খুব সহজে মোবাইল টক-টাইম অথবা ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড ব্যাবহার করে প্রয়োজন অনুযায়ী অ্যাপ্লিকেশন কিনতে পারবেন। তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের সচিব জনাব নজরম্নল ইসলাম খান ফ্রিল্যান্সারদের জন্য বিশেষ প্লাটফর্ম তৈরী করায় এস.এস.এল ওয়্যারলেসকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন ’এই প্লাটফর্মের মাধ্যমে নিঃসন্দেহে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরীর প্রচেষ্টাকে একধাপ ত্বরান্বিত করেছে।’
অ্যাপ্লিকেশনটি সম্পর্কে প্রতিষ্ঠানটির চীফ অপারেটিং অফিসার আনিসুল ইসলাম বলেনু, যদিও আমরা মূলত একটি প্রযুক্তিনির্ভও প্রতিষ্ঠান, যার মূল লক্ষ্য হচ্ছে দ্রুত এবং সর্বদা পরিবর্তনশীল টেলিযোগাযোগ শিল্পের  সঙ্গে তালমিলিয়ে বিভিন্ন সেবা প্রদান করা। apps2play.mobi এর মাধ্যমে স্থানীয়  প্রোগামাররা তাদের প্রোগ্রামগুলোকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রকাশ করতে পারবেন। একই সঙ্গে এই প্লাটফর্মের মাধ্যমে মোবাইল গ্রাহকদের অ্যাপ্লিকেশন ক্রয়ের উপর ভিত্তি করে আয় করার এক নতুন পথ উন্মোচিত হবে। যা কিনা প্রথাগত পেস্ন-ষ্টোরগুলোর বর্তমান অবকাঠামোর মাধ্যমে করতে গেলে বড় আকারের বিনিয়োগের প্রয়োজন হত। আমাদেও এই উদ্ভাবনের দ্বারা মোবাইল ব্যাবহারকারীদো জন্য বিভিন্ন সফটওয়্যার সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সমাধান সাধ্যের ভেতরে চলে আসবে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় গুরম্নত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।
এ ছাড়া পার্টনার হিসেবে এখনি ডটকম, ক্রিয়েটিভ পার্টনার হিসেবে ক্রিয়েটিভ আইটি লিমিটেড, গেমিং জোন পার্টনার হিসেবে এএমডি গিগাবাইট, নলেজ পার্টনার হিসেবে বিডিওএসএন, কমিউনিকেশন পার্টনার হিসেবে সফটকল, বস্নগ পার্টনার হিসেবে সামহোয়্যার ইন বস্নগ ও ওয়েব পার্টনার হিসেবে বাংলানিউজ২৪ ডটকম।
তিন দিনের এ মেলায় অংশ নিচ্ছে এসএসএল কমার্জ, ই-সুফিয়ানা, কমজগৎ টেকনোলজিস, এখনি ডটকম, বগুড়ার দই, রূপকথার জামদানি, জেডকাইট৯, টি-জোন, ওঅনলাইনশপ, অ্যাট২ক্লিকস, বিডিহাট, আপনজোন, ওয়েবশহর (সিটিসেল), অ্যারামেক্স ঢাকা লিমিটেড, জোন ৮৩, বাংলাদেশ পোস্ট অফিস, শাম্মা’স মেহেদী আর্টসহ ঢাকা ও সিলেটের ই-বাণিজ্য ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবাদাতা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার পক্ষ থেকে সিলেট জেলা ই-সেবা কেন্দ্র ও সিলেট সদর, দক্ষিণসুরমা, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, জকিগঞ্জ, কানাইঘাট, জৈমত্মাপুর, গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, বিশ্বনাথ, বালাগঞ্জ ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রগুলো অংশগ্রহণ করবে।
আয়োজকেরা জানান, এবারের মেলাকে সহজে তরম্নণ প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগের সাইট ফেসবুকের মাধ্যমে মেলার বিভিন্ন আপডেট প্রকাশ করা হচ্ছে। আপডেট পেতে www.facebook.com/ECommerceFair ঠিকানার পেজ লাইক করতে হবে। এ ছাড়া মেলার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.e-commercefair.com থেকেও জানা যাবে প্রয়োজনীয় তথ্য।
তিন দিনব্যাপী এ মেলার অনুষ্ঠানাদি www.comjagat.com ওয়েবসাইটে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।
মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরম্ন হয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে। মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। হ্রাসকৃত মূল্যে বিভিন্ন পণ্য কেনা যাবে।
এক নজরে সিলেট ই-বাণিজ্য মেলা-২০১৩
স্লোগান    : ঘরে বসে কেনাকাটার উৎসব
স্থান  :  সিলেট জিমনেশিয়াম
তারিখ ও সময়  :  ৪-৬ এপ্রিল ২০১৩, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত
আয়োজক :   কমপিউটার জগৎ ও সিলেট জেলা প্রশাসন
পৃষ্ঠপোষকতায়  :  তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় ও সিলেট বিভাগীয় কমিশনার
প্লাটিনাম স্পন্সর  :  এসএসএল কমার্জ ও কমজগৎ টেকনোলজিস
গোল্ড স্পন্সর :   ই-সুফিয়ানা ও সিজে সফট
ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট :   অর্পণ কমিউনিকেশন লি:
পার্টনার    ক্রিয়েটিভ পার্টনার : ক্রিয়েটিভ আইটি লিমিটেড,
গেমিং জোন পার্টনার : গিগাবাইট, এএমডি
নলেজ পার্টনার : বিডিওএসএন,
কমিউনিকেশন পার্টনার : সফটকল,
ব্লগ পার্টনার : সামহোয়্যার ইন ব্লগ ও
ওয়েব পার্টনার : বাংলানিউজ২৪ ডটকম।
ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা পক্ষ থেকে অংশগ্রহনকারী    সিলেট জেলা ই-সেবা কেন্দ্র, ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র – সিলেট সদর, দক্ষিণসুরমা, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, জকিগঞ্জ, কানাইঘাট, জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, ফেঞ্চুগঞ্জ, বিশ্বনাথ, বালাগঞ্জ
অংশ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান   :  ৪৫ টি
প্রবেশ :    সবার জন্য উন্মুক্ত
বার্তা প্রেরক
মোহাম্মদ এহ্তেশাম উদ্দিন মাসুম
সমন্বয়কারী
সিলেট ই-বাণিজ্য মেলা ২০১৩
মোবাইল : ০১৬৭০২২৩১৮৭
e-mail : expo@comjagat.com

One thought on “সিলেটে তিন দিনব্যাপি ই-বাণিজ্য মেলা

  1. জাকারিয়া ভাই আসসালামু আলাইকুম। ভাইয়া নিশ্চয় ভাল আছেন। ভাইয়া আমি একটা প্রবলেম এ পডেছি। আমি graphicriver.net এর জন্য কিছু বাটন তৈরি করেছি। কিন্তু সেগুল আপলোড করতে পারছিনা। প্লীজ আমাকে একটু সাহায্য করুন।

Comments are closed.

সার্চ করুন

web hosting

জনপ্রিয় লেখাসমূহ

Find us on facebook

Scroll to top